৩৩ রানে ৭ উইকেট নিয়ে পাকিস্তানের নাটকীয় জয়

হাসান আলী দাপট

১৪ বছর পর পাকিস্তান সফরে গিয়ে টেস্টে হোয়াইটওয়াশ হলো দক্ষিণ আফ্রিকা। রাওয়ালপিন্ডিতে দ্বিতীয় টেস্টে হাসান আলী ও শাহীন শাহ আফ্রিদির গতির ঝড়ে ৯৫ রানে হারে মানে সফরকারীরা।

রাওয়ালপিন্ডি ক্রিকেট স্টেডিয়ামে ৩৭০ রানে লক্ষ্যে ব্যাটিংয়ে নামা দক্ষিণ আফ্রিকার শেষদিনে জয়ের জন্য দরকার ছিল ২৪৩ রান । রান তাড়া করতে নেমে ৩ উইকেটেই ২৪১ রান তুলে ফেলেছিল দক্ষিণ আফ্রিকা। তখন তাদের জয়টা মনে হচ্ছিলো সময়ের ব্যাপার।

কিন্তু সেখান থেকে হাসান আলির তোপে ২৭৪ রানেই গুটিয়ে গেছে কুইন্টন ডি ককের দল। পাকিস্তান পেয়েছে ৯৫ রানের জয়। সেইসঙ্গে দুই ম্যাচের টেস্ট সিরিজে প্রোটিয়াদের হোয়াইটওয়াশের লজ্জাও দিয়েছেন পাকিস্তান।

৮১ ওভার শেষে ৩ উইকেটে ২৪১ রান ছিল প্রোটিয়াদের। ৮২তম ওভারে টানা দুই ডেলিভারিতে দুই ব্যাটসম্যানকে আউট করেন হাসান আলি। তার প্রথম শিকার হন এইডেন মার্করাম (১০৮), পরের বলে তুলে নেন অধিনায়ক কুইন্টন ডি কককে (০)। আর তাতেই ম্যাচ ঘুরে যায় পাকিস্তানের দিকে

তার কয়েক ওভার পর আরেক সেট ব্যাটসম্যান টেম্বা বাভুমাকে আউট করেন শাহীন শাহ আফ্রিদি। এরপর আর উইকেটে কেউ দাঁড়াতে পারেনি।

জর্জ লিন্ডে (২১), কেশভ মহারাজ (১), অ্যানরিচ নর্টজেরা (০) করে হাসান আলির বলে আউট হয়ে ফিরে যান। শূন্য রানে রানআউট হন কাগিসো রাবাদা। আর তাতেই দক্ষিণ আফ্রিকা থামে ২৭৪ রানে।

দুর্দান্ত বোলিংয়ের কারণে ম্যাচসেরার পুরস্কারও পান হাসান আলি। তিনি ৬০ রানে ৫ উইকেট নিয়েছেন। ৫১ রানে ৪ উইকেট পান আরেক পেসার শাহীন শাহ আফ্রিদি।

পুরো সিরিজের দারুণ ব্যাটিং করা মোহাম্মদ রিজওয়ান সিরিজ সেরার পুরস্কার জেতেন। করাচিতে অনুষ্ঠিত সিরিজের প্রথম টেস্টে পাকিস্তান ৭ উইকেটে জয় পেয়েছিল।

Related posts

Leave a Comment